সাংবাদিক ও কবি শিরিনা আফরেজ
১৪ /৯৬ / ২০২১

কতো চক্রাকার ষড়যন্ত্র,
কতো মিথ্যের জাল যাও বুনে
কতো আঘাত করো
কতো প্রলয় আনো জীবনে।
নির্লজ্জতা প্রমান করো
হও নির্দয়! হও অমানবিক।
এই সব অতিক্রম করে ও আমরা
কিন্তুু বেঁচে থাকি ঠিক।
তোমাদের সুখ পাড়ায় নাকি ইদানিং
শুনেছি খুব সুখ তারার আনাগোনা।
তোমাদের চার পাশে ইট, পাথর, কংক্রিট
দেয়ালে ও নাকি হাসির ঝংকার যায় শোনা।
আমরা এখনও পাহাড়াদার
চৌরাস্তার মোর।
আমারা নিঝুম রাত্রি জাগি
আনতে সোনালী ভোর।
তোমাদের গায়ে গভীর সুগন্ধি
আমাদের গায়ে ধূলো।
আলো আঁধারিতে রঙিন তোমরা
আমরা বিলক্ষন তাঁকিয়ে দেখি
ঝোপ ঝারের জোনাকী আলো।
বড় ভালোবাসি ওই চাঁদ টারে
সে জেগে থাকে লক্ষ কোটি মাইল দূরে।
কিন্তুু তাঁর অলো ঠিক পৌঁছে যায়
আমার ভাঙা ঘরে।
নাইবা হলো খুনসুটি অথবা
রসালো কোন কাব্য।
যেমন খুশি তেমন চলুক
আমাদের ভবিতব্য।
আলাদা পথ তোমার আমার
তেল আর জলের মতো।
জীবন চলে জীবনের নিয়মে
ছুটে চলা অবিরত।
জীবনের পথ আলাদা হলেও
মনের কোঠায় বাস।
তোমার চোখেই দেখেছি আমি
নিজের সর্বনাশ।
সর্বনাশের সিড়ি বেয়ে
জানিনা কোথায় যাই।
পথের শেষে বিরান মাঠের
কোথাও তুমি নাই।
যখন তোমার পেয়েছি খোঁজ
ঘুরছো কতো হাতে।
নটি নর্তকি পাক পেয়াদাও
রয়েছে তোমার সাথে।
দীর্ঘশ্বাসে আকাশ ভারী
মনের কোনে মেঘ।
ভারী বর্ষন মোছায় কান্না
মৃত অনুভুতি আর মৃত আবেগ!