নিজস্ব প্রতিবেদক
নানা অনিয়ম দুনীতি ও মৃত মায়ের জমানো নগদ টাকা কাগজ পত্র আলমারী ভেঙ্গে নিয়ে গেছে ছেলে,বর্তমান চেয়ারম্যান উত্তম কুমার মৈত্র,তার বিরুদ্ধে অভিযোগ এনে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভিডিও ভাইরাল হয়। ফেসবুক লাইফে এসে, ছেলের বিচার চাইলেন,প্রধানমন্ত্রীর কাছে পিতা প্রফুল্ল রঞ্জনকুমার মৈত্র ।
পিরোজপুর জেলার নাজিরপুর উজেলার ৮নং শ্রীরামকাঠি ইউপি চেয়ারম্যান উত্তম কুমার মৈত্রর, পিতা প্রফুল্ল মৈত্র সামাজিক যোগাযোগ ফেসবুক লাইফে এসে প্রধানমন্ত্রীর কাছে, ছেলের নানা অনিয়ম দুনীতি ও মৃত মিরা রানী হালদারের জমানো প্রায় ৭সাত লাক্ষ টাকা ও কাগজ পত্র আলমিরা ভেঙ্গে নিয়ে গেছে । আমার ছেলে বর্তমান চেয়ারম্যান আওয়ামীলীগের নৌকা নিয়ে নির্বাচিত হয়েছে। তার অনিয়ম ও দুনীতির বিরুদ্ধে অভিযোগ এনে ফেসবুক লাইফে পিতা প্রফুল্ল রঞ্জন কুমার মৈত্র বলেন, আমার ছেলে, আমার মৃত স্ত্রী সরকারি চাকরী করতেন, তিনি মারা যাওয়ার পর কাগজপত্র ও জমানো প্রায় সাত লক্ষ টাকা আলমারী ভেঙ্গে নিয়ে গেছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী মা হাসিনা আপনার কাছে আমার একটা অনুরোধ । আমার ছেলের অনিয়ম ও দুনীতির বিচার করুন।
জানাযায় তারই ইউপি সদস্যরা জেলা প্রশাসক বরাবর নানা অনিয়মের অভিযোগ করেছে। তার সাথে ফোনে যোগাযোগ করা হলে ফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়।হুবাহুব ফেসবুক লাইফের ভিডিও অভিযোগ তুলে ধরা হল।