বিশেষ প্রতিবেদক

দীর্ঘ ৩০ বছরের পরে পিরোজপুর জেলার নাজিরপুর উপজেলার কলারদোয়ানিয়া গোমস্তা বাড়ির সামনে নদীর উপর ১৫০ ফুট বাশ ও কাঠের সাঁকো নির্মাণ করলেন ইউপি চেয়ারম্যান হাসনাত ডালিম। সাঁকো দেখতে জনতার ঢল।
২৫ জুলাই রবিবার উপজেলার কলারদোয়ানিয়া ইউনিয়নের ৩ টি ওয়ার্ডের জনসাধারণের দীর্ঘ ৩০ বছরের দাবী ছিলো একটি ব্রীজের । দেশে করোনা কালিন সময় থাকায় ,স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান হাসনাত ডালিম উক্ত বিষয়টি মৎস্য ও প্রাণি সম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিমকে বিষয়টি অবহিত করেন। মাননীয় মন্ত্রী মহোদয়ের বরাদ্দকৃত ত্রাণ ও দূর্যোগ মন্ত্রণালয়ের অর্থায়নে, নয়াভিরাম বাশ ও কাঠের ১৫০ ফুট লম্বা সাঁকোটি ১২ দিনে নির্ম্মান করা হয় । দৃষ্টি নন্দন সাকোটি দেখার জন্য জনতার ঢল দেখাগেছে। গোমস্তা বাড়ির সামনে খালে উপর বাশ ও কাঠের সাকোঁ নির্ম্মান হওয়ায়, বৈঠাকাটা মাহমুদিয়া মাদ্রসা ও কলারদোয়ানিয়া হাইস্কুলের সাথে যোগাযোগর ব্যবস্তা হওয়াতে ৩টি ওয়ার্ডের জনসাধারণের মিলনমেলা দেখাগেছে।
ইউপি চেয়ারম্যান হাসনাত ডালিম বলেন, বিগত ১৫ বছরে যে উন্নয়ন হয়নি। মৎস্য ও প্রাণি সম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে, এই ইউনিয়নের উন্নয়নের চিত্র পাল্টে গেছে। সুদু এই ইউনিয়নের উন্নয়নের চিত্র পাল্টায়নি পিরোজপুর ১ আসনের উন্নয়নের চিত্র পাল্টে গেছে। মন্ত্রী মহোদয় ও সরকারের কাছে দাবী এখানে একটি আয়রন ব্রীজ অতিব জরুরী।
আওয়ামীলীগ নেতা মেসবাহুল শিমুল বাহাদুর বলেন, দীর্ঘদিনের দাবী একটি ব্রীজ হলে, হেচাখালী ঘুড়ে বৈঠাকাটা যেতে হবেনা । ঘুড়ে যেতে সময় লাগে ৯০মিনিট।